৫৯দিন বাদে খুলে গেল বন্ধ চাবাগান সাইলি, স্বস্তিতে প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক পরিবার

#মালবাজার: টানা ৫৯দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে খুলে গেল ডুয়ার্সের মাল ব্লকের সাইলি। স্বস্তির নিশ্বাস ফেললেন প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা। জানাগেছে, গত জানুয়ারি মাসের দুটি পাক্ষিক মজুরির দাবিতে শ্রমিকরা কারখানা গেটের সামনে বিক্ষোভ দেখায়। কর্তৃপক্ষ ৫ ফেব্রুয়ারি একটি পাক্ষিক মজুরি দেওয়ার কথা জানায়।
কিন্তু, মজুরি না দিয়ে গত ৪ ফেব্রুয়ারি রাতে ওয়ার্ক সাসপেন্সন বিঞ্জপ্তি জারি করে চাবাগান কর্তৃপক্ষ বাগান ছেড়ে চলে যায়। ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে কর্মহীন হয়ে পড়ে দেড় হাজার শ্রমিক। বাগান খোলার দাবীতে সোচ্চার হয় শ্রমিকরা। শ্রম আধিকারিক সহ বিভিন্ন সরকারি মহলে চিঠি দেয়। একাধিক বার শ্রম আধিকারিকের দপ্তরে বৈঠক ডাকা হলেও চাবাগান কর্তৃপক্ষ অনুপোস্থিত থাকে।
বাগান বন্ধ থাকায় শ্রমিকদের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার অবস্থা হয়। বাগান না খুললে ভোট বয়কটের আওয়াজ ওঠে। এইরকম পরিবেশে ৩ এপ্রিল জেলা শ্রম আধিকারিকের দপ্তরে এক ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে বাগান খোলার সিদ্ধান্ত হয়। মালের সহকারী শ্রম আধিকারিক প্রনব কুমার দাস জানান, সমস্যার সমাধান হয়েছে। সাইলি চাবাগান ৪ এপ্রিল খুলে যাচ্ছে।
চাবাগানের ম্যানেজার সুনীল অগ্রয়াল জানান,
বাগান খুলেছে এটা ভালো খবর। শ্রমিকদের বকেয়া দুই পাক্ষিক একটি ৬ এপ্রিল  ও অন্যটি ১২ এপ্রিল দেওয়া হবে।অন্যান্য পাওনা ধাপে ধাপে মিটিয়ে দেওয়া হবে। বাগান খোলায় স্বাগত জানিয়েছেন রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেনী কল্যাণ মন্ত্রী বুলু চিকবরাইক। তিনি বলেন, এটা ভালো খবর।
দুই মাস বাগান বন্ধ থাকায় শ্রমিকরা কষ্টে দিন কাটাচ্ছিল। ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে বাগান খুলতে চেষ্টা করা হয়েছে। মাল আদর্শ বিদ্যা ভবনের মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী বাগান খোলার খবরে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আজ একটা বাগান খুলে গেল। আমরা বন্ধ চাবাগান খোলার বিষয়ে আন্তরিক। এদিন যথারীতি চাবাগানে সাইরেন বাজে শ্রমিকদের পাতা তুলতে দেখা যায়।
News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Choose অবস্থা