ভোট চলাকালীন রামের নামে জায়গা দখলের অভিযোগ

#মালবাজার: লোকসভা ভোট চলাকালীন বানারহাটে রামের নামে জায়গা দখল অভিযোগ উঠলো বানারহাটে। বানারহাট বাজারে ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসের সামনে তাঁরাচাদ ময়দান নামে পরিচিত ব্যক্তিমালিকানাধীন একটি জমির প্রায় ১০ কাঠা জবরদখল হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ৷ ‘শ্রী রাম সেনা’ নামে একটি সংগঠন জমিটি বাঁশ দিয়ে ঘিরে তাতে রামের ছবি ও গেরুয়া ঝান্ডা লাগিয়ে দিয়েছে।
মূল বাজারে অবস্থিত কয়েক কোটি টাকা মূল্যের জমি এভাবে দখল হয়ে যাওয়ায় সরব হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দারা। উত্তরে ভোটের হাওয়া ঠান্ডা হতেই বিজেপির মদদপুষ্ট সংগঠনকে সামনে রেখে গেরুয়া ঝান্ডা লাগিয়ে জমি জবরদখলে নেমেছে কিছু ব্যক্তি, এমনই অভিযোগ তৃণমূলের। যদিও এই সংগঠনের সাথে তাদের যোগাযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি।
জানা গিয়েছে বানারহাট বাজারের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে এই জমিটি শরিকি বিবাদের কারণে ফাঁকা পড়ে রয়েছে। এরই একটি অংশে অস্থায়ী ছোট গাড়ির স্ট্যান্ড গড়ে উঠেছে। এই জমিটিকে অধিগ্রহণ করে নতুন ব্লকের জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন সরকারি দপ্তর এখানে তৈরির পরিকল্পনাও একসময় নেওয়া হয়েছিল। এবারে রাম নবমীর দিন ‘শ্রী রাম সেনা’ নামের একটি সংগঠন এই মাঠেই মঞ্চ বেঁধে অনুষ্ঠান ও প্রসাদ বিতরণ এর আয়োজন করেছিল, তাদের মিছিলও শুরু হয়েছিল এই ময়দান থেকেই।
অভিযোগ – অনুষ্ঠান শেষ হয়ে যাওয়ার পর প্যান্ডাল খুলে নিলেও সংগঠনের সদস্যরা প্রায় দশ কাঠা পরিমাণ জমি বাঁশ লাগিয়ে ঘিরে ফেলেছে। ঘেরা দেওয়া জায়গা পরিস্কার করে তাতে রামের ছবি, সংগঠনের ব্যানার ও গেরুয়া ঝান্ডাও লাগানো হয়েছে। এই জমিতে গোশালা ও মন্দির নির্মান করার পরিকল্পনা করছে সংগঠনটি। ভোট রাজনীতিতে ফায়দা তোলার জন্য ভুঁইফোড় সংগঠনকে সামনে রেখে ধর্মীয় মেরুকরণ ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের চেষ্টা করছে বিজেপি বলেই অভিযোগ তৃণমূলের।
শ্রীরাম সেনার রাজ্য কমিটির সহ সভাপতি মন্তোষ দাস বলেন তারা জমির মালিকের থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়ে এখানে রাম নবমীর অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। ফাঁকা জমিটির একটি অংশ তারা পরিস্কার করে ঘিরেছেন। জমির মালিকের থেকে অনুমতি পেলে এখানে তারা এখানে একটি গোশালা ও রাম মন্দির নির্মান করবেন।
যদিও জমির অংশিদারদের একজন জানান, আমাদের থেকে কেউ কোন অনুমতি নেয়নি।
News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Choose অবস্থা