News Britant

Wednesday, August 17, 2022

ফোর লেনের কাজ শুরু হওয়ায় উদ্বিগ্ন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা

Listen

#মালবাজারঃ বহু বাধাবিগ্ন পার করে অবশেষে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে কাজ শুরু হলো ফোর লেনের রাস্তার। মাল মহকুমার ওদলাবাড়ি বাজার থেকে ওদলাবাড়ি চাবাগান পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার রাজ্য সড়ক ফোর লেনের করছে রাজ্য সরকার। সেই জন্য গত এক মাস আগে রাস্তার মাপঝোঁক শুরু করেছে পুর্ত দপ্তর। বর্তমানে এই রাজ্য সড়ক ফোরলেনে কনভার্ট করার জন্য রাস্তার মাঝ থেকে রাস্তার দুধারে ১২ মিটার ১২ মিটার মার্কিং করে গেছে পুর্ত দপ্তরের আধিকারিকেরা। ইতি মধ্যে রাস্তার দুধারে বেশ কিছু গাছ কাটাও হয়ে গেছে।

ফোর লেনের জন্য এত বেশি পরিমান জায়গা নেওয়াতে সমস্যায় পরে যায় এলাকার ব্যবসায়ী থেকে সাধারন মানুষ। কারন ১২মিটার করে রাস্তার দুধারে জায়গা নিলে ভাঙ্গা পরবে বহু দোকান এবং ঘরবাড়ি। আর এর প্রতিবাদে রাস্তায় নামে ওদলবাড়ি ক্রান্তি রোড  ব্যাবসায়ী সংগঠন।  সমস্ত মানুষের দাবি ব্যবসায়ীদের এবং সাধারন মানুষকে বাচিয়ে রাস্তা করা হোক। আর সেই কারনে বেশ কিছুদিন ধরে রাস্তার কাচ শুরু করতে পারছিলো না ঠিকাদার সংস্থা। অবশেষে সাধারান মানুষ এবং ব্যাবসায়ীদের কথা ভেবে ১২ মিটারের পরিবর্তে ১১ মিটার জায়গা নেওয়া সিদ্ধান্ত নিলো ঠিকাদার সংস্থা।

সেই মতো বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মাটি খোরাখুরির কাজ শুরু করলো ঠিকাদার সংস্থা।তবে এতেও সন্তুষ্ট না এ সংগঠন। সংগঠনের কোওর্ডিনেটার নফসর আলী বলেন, ১০ মিটারের কম নিলে ব্যাবসায়ীরা বাচবে। তানাহলে ক্ষতি হবে ব্যাবসায়ীদের। ঠিকাদার সংস্থার ইনচার্চ তসলিম আনসারি বলেন, এব্যাপারে এলাকার সমাজসেবি তমাল ঘোষের সাথে কথা বলি। তমাল বাবু আমায় জানায়, ব্যবসায়ীদের বাচিয়ে রাস্তা হোক। সেই মতো বৃহস্পতিবার থেকে আমরা রাস্তার কাজ শুরু করলাম। এখন ১১ মিটারের মধ্যে রাস্তা হচ্ছে।

এক দুদিনের মধ্যে মাইকিং বা নোটিশ এর মাধ্যমে ব্যবসায়ী এবং সাধারন মানুষকে ক্লিয়ারেন্স করতে বলে হবে। এব্যাপারে সমাজ তথা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি তমাল ঘোষ বলেন, আমাদের দীর্ঘ দিনের দাবি ছিল এই রাস্তার। রাজ্য সরকার এই রাস্তা তৈরি করছে। এতে এলাকার উন্নতি হবে। তবে ব্যবসায়ীদের বাচিয়ে যাতে রাস্তা হয়, সেই চেষ্টাই করা হয়েছে। আজ থেকে কাজ শুরু হয়েছে। আগামিকাল থেকে ১১ মিটারের মধ্যে যেসব দোকান বা ঘরবাড়ি আছে সেসব সরিয়ে নেওয়া হবে।

 

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Also Read