News Britant

Sunday, September 25, 2022

বর্ষায় জলমগ্ন পুর এলাকা, ক্ষোভ এলাকাবাসীর, জলবন্দি অজস্র মানুষ

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#ইসলামপুর: পুরসভা গঠনের প্রায় ত্রিশ বছর পেরিয়ে গেলেও যে নিকাশি ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভাবে গড়ে ওঠেনি তারই চিত্র আরও একবার দেখল এলাকাবাসী। পূর্ণাঙ্গ নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় ফি বছর বর্ষায় ইসলামপুর পুরসভার পাশাপাশি ইসলামপুর ব্লকের বিস্তীর্ণ এলাকায় রীতিমতো বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। জলবন্দী হয়ে পড়েন এলাকার বাসিন্দারা। অথচ সুষ্ঠ নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পুরসভার তথা প্রশাসনের তেমন কোনও ভূমিকা নেই বলেই অভিযোগ। দীর্ঘ তিন দশকেও পরিকল্পিত ভাবে নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় তার মাশুল গুনতে হচ্ছে স্থানীয় মানুষজনদের। আদৌ তা কবে গড়ে উঠবে তা জানা নেই কারও।

ইসলামপুর পুরসভার প্রশাহক কানাইলাল আগরওয়াল জানান, বর্ষার জমে থাকা জল সরিয়ে দেবার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। নিকাশি ব্যবস্থায় খুব একটা সমস্যা হবার কথা নয়। কারণ ভারী বৃষ্টিতে একটু জল জমলেও তা কিছুক্ষন বাদে ধীরে ধীরে সরে যায়। তিনি বলেন, লোল্যান্ডকে বেস করে কখনোই ড্রেনিং সিস্টেম তৈরি হয় না।তাই এই সমস্যা তাৎক্ষণিক। ফোর লেনের কাজ শেষ হলে যে সমস্ত হাইড্রেন গুলো রয়েছে সেগুলো দোকানের সামনে চলে আসবে। তখন পরিষ্কার করা সুবিধাজনক হবে। ইসলামপুর সংলগ্ন এলাকায় নদী না থাকায়  জল সরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা নেই। ফলে মাতার প্ল্যান কাজে আসেনি।তিস্তা ক্যানেল এর কাজ শেষ হয়নি।

তাই সেখানেও কিছু করা যায়নি। স্থানীয় বিজেপি নেতা সৌম্যরূপ মন্ডল বলেন, পাঁচ নাম্বার ওয়ার্ড সহ বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। এমনকি কোনো কোনো জায়গায় হাঁটুর উপরে জল। গাড়ি নিয়ে যাওয়া যাচ্ছে না। গত প্রায় তিন দশকেও মাস্টারপ্ল্যান হয়নি বলে অভিযোগ তার। তিনি বলেন, ছোট থেকে বড় ড্রেনেরজল যাবে এবং সেখান থেকে শহরের বাইরে চলে যাবে জল। এই সিস্টেম এখানে নেই। জেলার সংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীকে বিষয়টি জানানো  হয়েছে বিষয়টি। জরুরী পরিস্থিতি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে ইসলামপুর পৌরসভার সতেরটি ওয়ার্ডেই এখনও পর্যন্ত সম্পুর্ন ভাবে নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি।

ব্লকের ইসলামপুর সহ অন্যান্য গ্রাম পঞ্চায়েত গুলিতেও একই হাল। আদৌ পরিকল্পিত ভাবে তৈরিই হয়নি নিকাশি নালা। অনেক নালাতেই এমনকি হাইড্রেনেও এলাকার বাসিন্দারা তথা ব্যবসায়ীরা নোংরা আবর্জনা ফেলায় মুখ থুবড়ে পড়েছে ওই নিকাশি ব্যবস্থা। এর জেরে এলাকার জমে থাকা জল অনেক ক্ষেত্রেই বাইরে বেরিয়ে যেতে পারছে না। সেখানে একটা সমস্যা হচ্ছে। তবে নিয়মিত নিকাশি নালা পরিষ্কার হয়না বলেও অভিযোগ। ইসলামপুর অপ্সরা মোড়ের জাতীয় সড়ক সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মহাবীর প্রসাদ টোডি।  তিনি বলেন, তার বাড়িতে জল ঢুকে গেছে। ঘর ভেসে যাচ্ছে জলে।

বিষয়টি পুরসভার প্রশাসককে জানিয়েও  সমস্যার সমাধান হয়নি। একমাত্র নিকাশি ব্যবস্থা ঠিক না হওয়ার জন্যই এই সমস্যা বলে অভিযোগ তার। যদিও ইসলামপুরের শান্তিনগর, রামকৃষ্ণ পল্লী, সারদা পল্লী, লোকনাথ নগর, দুর্গানগর সহ বেশ কিছু নিচু এলাকা রয়েছে যেখানে একটু বর্ষাতেই জল জমে যায়। তবে পরিকল্পনা অনুযায়ী ইসলামপুরের নিকাশি ব্যবস্থা তৈরি না হওয়ায় ফি বছর দুর্ভোগে পড়তে হয় এলাকার মানুষজনকে।অবিলম্বে পূর্ণাঙ্গ নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে তোলার জোরালো দাবি উঠেছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment