News Britant

Wednesday, August 17, 2022

ঝালং নদীর পাড়ে

Listen


মালবিকা বন্দ্যোপাধ্যায়,কলকাতা : চালসা থেকে খুনিয়া মোড় হয়ে দুপাশে ঘন জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে যে রাস্তাটি চলে গেছে, সেটি ধরে এগোলেই বাঁ হাতে চাপড়ামারি অরণ্য। লিপচু মোড় থেকে ডানদিকে গাড়ি ঘোরালেই চলে আসবেন এক অপূর্ব সুন্দর পাহাড়িয়া গ্রামে। সে গ্রামের নামটিও ভারি সুন্দর- “ঝালং”। দুই অশান্ত পাহাড়ি নদী -ঝালং খোলা আর রঙ্গখোলা নিয়েই ঝালং গ্রামের সংসার।

এই দুই নদী আরেটু দূরপ্রসারী হয়ে ঝাঁপ দিয়েছে জলঢাকার বুকে । সেখানে টারবাইন ঘুরিয়ে কত কান্ড করে উৎপন্ন করা হচ্ছে জলবিদ্যুৎ, যাকে বলে এক্কেবারে ‘হাইড্রোইলেকট্রিসিটি’ । ঝালং-এ নদীর একদম গা ঘেঁষেই দারুন সুন্দর টেন্টে থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। ফরেস্ট ডিপার্টমেন্টের সাজানো গোছান বাংলোও রয়েছে। হাতের নাগালেই প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভুটান।

ঝালং থেকে জলঢাকা পার হয়ে চলে যাওয়া যায় প্যারেন। আরেকটি ছবির মত সুন্দর গ্রাম। প্যারেন কে পেছনে রেখে আরেকটু এগোলেই বিন্দু। ঝালং থেকে দূরত্ব ১২ কিমি । “প্যায়ারী বিন্দু” কিন্তু ভারত-ভুটান সীমান্তের শেষ গ্রাম । ঝালং এ রয়েছে একটা সুন্দর গুম্ফা। গুম্ফার রং-বেরংয়ের পতাকা আর মন্ত্র প্রার্থনা সংগীত ঝালং এর সৌন্দর্যে একটি অন্য মাত্রা এনে দিয়েছে। এই ছোট্ট পাবর্ত্য গ্রামের লোকেদের যে আতিথেয়তা পেয়েছি, তা সত্যিই ভোলার নয়। প্রতি বৃহস্পতিবার এখানে হাটও বসে।

কীভাবে যাবেন : শিয়ালদহ অথবা হাওড়া থেকে ট্রেনে নিউ মাল জংশন। সেখান থেকে গাড়িতে চালসা হয়ে ঝালং। দূরত্ব প্রায় ৪৬ কিমি। ঝালং এ থেকে কাছাকাছি আরও কয়েকটি জায়গা দেখে নিতে পারেন- যেমন বিন্দু, প্যারেন কিনবা মূর্তি। গাড়ি ভাড়া ৩০০০-৩৫০০ টাকা।

কোথায় থাকবেন : আছে ওয়েস্টবেঙ্গল ফরেস্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটিরর ঝালং রিভার ক্যাম্পের তাঁবু। টেন্টের ভাড়া ১৫০০-২০০০ টাকা। ওয়েবসাইট : www.wbfdc.com. এছাড়া কিছু প্রাইভেট হোটেলও রয়েছে। বিন্দুতে থাকতে হলে রয়েছে শিবাজি ট্যুরিস্ট ইন (9830163154), ভাড়া ১২০০ টাকা। প্যারেনে থাকতে পারেন wbfdc এর ট্যুরিস্ট লজে। নন-এসি ডাবল বেড রুম পেয়ে যাবেন ২০০০ টাকার মধ্যেই।

ছবি: সুপ্রতিম মন্ডল

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Also Read