News Britant

Thursday, August 11, 2022

জেলার সব কলেজকে নিয়ে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তুতি বৈঠক, নিমরাজী ২

Listen

#রায়গঞ্জঃ রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী উত্তর  দিনাজপুর জেলায় প্রতিষ্ঠিত সবকটি কলেজ চলে আসবে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাতার তলায়। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে পঠনপাঠন শুরু হওয়ারও কথা। এই পরিস্থিতিতে আগামী  ২৩ তারিখ জেলার ৬ টি কলেজের অধ্যক্ষদের নিয়ে প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবে। যদিও জেলার অন্তর্গত ইসলামপুর ও চোপড়া কলেজ উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়কে ছেড়ে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে আসতে চাইছে না বলে জানা গেছে।

সূত্র মারফত জানা গেছে, দুদিন আগে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের এ্যাডভাইসরি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপাচার্য সঞ্চারী রায় মুখোপাধ্যায়, নিবন্ধক ড. দূর্লভ সরকার, দুই অধ্যক্ষ অধ্যাপক দীপক রায় ও অধ্যাপক কালিশঙ্কর তেওয়ারি সহ অধ্যাপক ও আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। জেলার সমস্ত কলেজগুলোর মতামত জানতে আগামী ২৩শে ফেব্রুয়ারি অধ্যক্ষদের ডাকা হয়েছে বলে জানা গেছে।

উত্তর দিনাজপুর জেলার ৬ টি ডিগ্রি কলেজের মধ্যে রায়গঞ্জের সুরেন্দ্রনাথ, ইটাহারের ড. মেঘনাদ সাহা, কালিয়াগঞ্জ ও ডালখোলা অগ্রসেন কলেজ গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এবং ইসলামপুর ও চোপড়া কলেজ উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচী অনুসরণ করে। পড়ুয়াদের দাবি, জেলার প্রতিটি  কলেজ রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে আসলে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে পড়ুয়াদের অনেক সুবিধে হবে।

তবে আগামী ২৩ তারিখ রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্তর্ভূক্তির বিষয়ে জেলার কলেজগুলির মতামতের উপর সরকারের নির্দেশিকা কার্যকর হবে কিনা তা  নির্ভর করছে। ইসলামপুর কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কাজল রঞ্জন বিশ্বাস জানিয়েছেন, আমরা উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ভালই আছি। সমস্ত রকম সুযোগ সুবিধা আমরা পেয়ে থাকি। পাশাপাশি ভৌগোলিকগতভাবে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা  কাজকর্ম করে সহজে দিনে দিনে  ফিরতে আসতে পারে, রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় হলে তা হবে না।

তিনি বলেন, ছাত্র-ছাত্রী, অধ্যাপক ও শিক্ষাকর্মীরা উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকতে চাইছে। ভৌগোলিক কারন তো আছে, সেইসঙ্গে টেকনিক্যাল কারনও আছে। যেহেতু আমাদের কোনো অসুবিধা নেই, তাই উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকতে চাই। কালিয়াগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ পীযুষ দাস বলেন, আমরা ন্যাক মূল্যায়নে ভালো ফলাফল করে, সেটাকে বজায় রেখে এগোচ্ছি। গৌরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো সমস্যা নেই। ইটাহার কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. মুকুন্দ মিশ্র বলেন, ‘আমরা রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের মিটিংয়ের চিঠি পেয়েছি। নিশ্চয়ই ওই মিটিংয়ে অংশ নেব।

আলোচনা করে ফিরে এসে আমাদের কলেজের অধ্যাপক ও গভর্নিং বডির সাথে আলোচনা করব। রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. দুর্লভ সরকার জানিয়েছেন,  এই বিষয়ে শিক্ষা দফতরের নির্দেশিকা মতো আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি জেলার কলেজগুলির প্রিন্সিপালদের নিয়ে মিটিং ডাকা হয়েছে । বিষয়টি নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সর্বসম্মতিক্রমে একটি সিদ্ধান্তে আসা হবে। এক্ষেত্রে কোনো কলেজকে জোড়াজুড়ি করা হবে না। কলেজগুলি গভর্নিং বডি তাদের  সিদ্ধান্ত উচ্চশিক্ষা দপ্তরকে জানিয়ে দেবে। সব বাধা টপকে এই শিক্ষাবর্ষ থেকেই রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এই সব কলেজে পঠনপাঠন চালু হয় কি না, সেদিকেই তাকিয়ে সংশ্লিষ্ট মহল।

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment