News Britant

Wednesday, August 17, 2022

বিরোধীদের ব্যাকফুটে রেখে, জেলার তিন পুরসভায় ঘাসফুল

Listen

#কৌশিক চট্টোপাধ্যায়, রায়গঞ্জ: পুরভোটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের কথা বললেও শেষ পর্যন্ত উত্তর দিনাজপুর জেলার তিনটি পুরসভা নির্বাচনে তৃণমূলের কাছে কার্যত ব্যাকফুটে বিরোধী রাজনৈতিক দল গুলি। জেলার মোট ৪৯ টি আসনের মধ্যে ৩২ আসনই নিজেদের দখলে আনল ঘাসফুল শিবির। গেরুয়া শিবিরের ৮ টি,সিপিএমের দখলে ১ টি আসন এবং নির্দলদের দখলে এলো ৮ টি আসন।

বুধবার ভোট গণনা শুরুর থেকেই তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের উল্লাসের ছবি আসতে থাকে জেলার তিনটি পুরসভার এলাকা থেকে। জেলার অন্যতম নজরকাড়া কেন্দ্র হিসেবে কালিয়াগঞ্জ পুরসভার দিকে তাকিয়ে ছিল রাজনৈতিক মহল। দীর্ঘদিনের টালমাটাল রাজনৈতিক পরিস্থিতির পরিবর্তন করতে আসরে নামে তৃণমূল এবং বিজেপির নেতা কর্মীরা৷

বিধানসভা নির্বাচনের আগে কালিয়াগঞ্জ পুরসভার চেয়ারম্যান এবং তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন কার্তিক চন্দ্র পাল। এবারেও পুর নির্বাচনে কার্তিক পালের ওপরেই আস্থা রাখে গেরুয়া শিবির। কার্তিক পালে জিতলেও পুরসভার ১৭ টি আসনের মধ্যে ১০ টি আসনে জয়লাভ করলো তৃণমূল ৬ টি আসনে বিজেপি এবং ১ টি আসনে নির্দল প্রার্থী জয়লাভ করেন।

অন্যদিকে,  ইসলামপুর পৌরসভার ১৭ টি ওয়ার্ডের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস সতেরটিই পাবেন বলে আশাবাদী থাকলেও সেই আশাকে উড়িয়ে দিয়েছেন বিরোধীরা। ১৭ টি আসনের মধ্যে ১১টি আসন দখল করে তৃণমূল কংগ্রেস, নির্দল ৩ টি, বিজেপি ২  এবং ১ আসন  সিপিএমের দখলে আসে। বুধবার ইসলামপুর গার্লস হাই স্কুলে  গণনা কেন্দ্রে ডালখোলা পৌরসভা এবং ইসলামপুর পৌরসভা এই দুটি পুরসভার ভোট গণনা হয়। ডালখোলা পৌরসভায় ষোলটি আসনের মধ্যে ১২ টি  তৃণমূল কংগ্রেস এবং ৪টি আসন পেয়েছে নির্দল।

উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কানাইলাল আগরওয়াল জানান, ইসলামপুর, ডালখোলা এবং কালিয়াগঞ্জ তিনটিতেই তৃণমূল কংগ্রেস বোর্ড গঠন করবে। তবে যে সমস্ত ওয়ার্ডগুলোতে তারা আশানুরূপ ফলাফল করতে পারেননি সেগুলো পর্যালোচনা করে দেখা হচ্ছে। এদিন তিনি বলেন, যে সকল ব্যক্তি তাদের দল থেকে নির্দল প্রার্থী হয়েছিলেন, তারা জয়ী হলেও তাদেরকে তৃণমূল কংগ্রেসে অন্তর্ভুক্ত করা হবে না।

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment