News Britant

Saturday, September 24, 2022

করোনার প্রকোপে ম্লান শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠান, মন খারাপ ছাত্রছাত্রীদের সাথে ব্যবসায়ীদেরও

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#দেবলীনা ব্যানার্জী, রায়গঞ্জ: ছাত্র শিক্ষক সম্পর্কের উদযাপন শিক্ষক দিবস। ভারতের দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি ড: সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের জন্মদিন পালনের সাথে শিক্ষক শিক্ষিকাদের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য নানারকম অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ছাত্রছাত্রীরা। গুরু শিষ্য সম্পর্ককে একটু কাছাকাছি নিয়ে আসার একমাত্র উৎসব বলা যেতে পারে এই দিনটিকে। কিন্তু এবছর করোনা আবহে পাঁচ মাস ধরে বন্ধ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। অন্যদিকে দোরগোড়ায় কড়া নাড়ছে ৫ই সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস। এবছর কি তাহলে ছাত্রছাত্রীরা শ্রদ্ধা জানাবে না তাদের প্রিয় শিক্ষকদের? যদিও কিছু ছাত্রছাত্রী অনলাইন ভার্চুয়াল সভা ও অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানাবেন বলে ঠিক করে রেখেছে। যেমন ভাবে রবীন্দ্র জয়ন্তী পালন হয়েছে এবছর। তবুও বিদ্যালয়ের প্রস্তুতির ব্যস্ততার দিনগুলোর কথা সবারই কম বেশি মনে তো পরছেই। অন্যান্যবার দিন পনেরো আগে থেকেই অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়। সেসব আনন্দ এবছর একেবারেই ম্লান।

শিক্ষাদপ্তর থেকেও অন্যান্যবার নানারকম কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এদিন রাজ্যের ১০০ শিক্ষককে শিক্ষারত্ন পুরস্কার দেয় সরকার। কিন্তু এবছর সেসব নিয়েও তেমন কোনো নির্দেশিকা এসে পৌঁছায় নি। রায়গঞ্জ চক্রের বিদ্যালয় পরিদর্শক নাসরিন পারভেজ জানান, ‘এবছর শিক্ষারত্ন পুরস্কারের জন্য অনেকেই আবেদন তো করেছেন। আবেদনপত্রগুলো পাঠিয়েও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনো নির্দেশিকা এসে পৌঁছায় নি।’ রায়গঞ্জ করোনেশন হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক শুভেন্দু মুখার্জির এবছরই বিদ্যালয়ে শেষতম শিক্ষক দিবস পালন হওয়ার কথা। তিনি জানান, ‘করোনার জন্য জমায়েত সম্ভব নয়। তাই বিদ্যালয়ে শিক্ষকরা এসে শুধু ফুল মালা দিয়ে রাধাকৃষ্ণনের ফটোতে শ্রদ্ধা জানাব।’

অন্যদিকে মন খারাপ ছাত্রছাত্রীদেরও। ভার্চুয়াল সভা কিছুতেই শিক্ষক দিবসের আনন্দ পুরোটা যে দিতে পারবে না তা একবাক্যে স্বীকার করে নিচ্ছে সকলেই। একসাথে জমায়েত, শ্রদ্ধেয় শিক্ষকদের সান্নিধ্য কিছুই সম্ভব নয় এই পরিস্থিতিতে।  তাই অনলাইনে অনেকটা দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো। ২০১৯ সালে মাধ্যমিকে রাজ্যের মেধা তালিকায় তৃতীয় স্থানাধিকারী রায়গঞ্জ  করোনেশন হাই স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ক্যামেলিয়া রায়, এবছরের মাধ্যমিকে জেলায় মেয়েদের মধ্যে প্রথম স্থানাধিকারী রায়গঞ্জ করোনেশন হাই স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী মেহেবুবা আলি দুজনেরই বক্তব্য, ‘শিক্ষক দিবসের অনুভূতিটা ঠিক মুখে প্রকাশ করা যায় না। প্রতিবছর এই দিনটা আলাদাভাবেই কাটে। কিন্তু এবছর উপায় নেই, তাই ভার্চুয়ালিই শ্রদ্ধা জানাতে হবে।’ ছাত্রছাত্রীরা তো ভার্চুয়াল একটা রাস্তা বের করেছে কিন্তু মাথায় হাত ব্যবসায়ীদের।  অন্যান্যবার এই সময় উপহার ও ডেকোরেশনের জিনিস জেনার ধুম পড়ে যায়। কিন্তু এবার কোনো বিক্রি-বাট্টা নেই। অনলাইন সভায় উপহার দেওয়ার কোনো ব্যাপারই নেই যে। রায়গঞ্জ সুপারমার্কেট সংলগ্ন এক দোকানদার বললেন, ‘অন্যান্যবার এত ভিড় জমে যায় যে দোকানের সামনে আলাদাভাবে পসরা সাজিয়ে বসতে হয়। এবার কিছুই নেই।’ তাই গালে হাত দিয়ে বিক্রেতা উপহার সামগ্রীর বদলে স্যানিটাইজারের বোতল সাজিয়ে চুপচাপ বসে আছেন।

 

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment