News Britant

Wednesday, August 17, 2022

রোহিঙ্গা গণহত্যা: মায়ানমারের বিচার করতে পারবে আন্তর্জাতিক বিচার আদালত

Listen

#হাবিবুর রহমান, ঢাকা: রোহিঙ্গাদের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন ও গণহত্যা কাণ্ডে ফের আসামির কাঠগড়ায় ঠাই হলো মায়ানমারের সামরিক জান্তাকে। গত শুক্রবার আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (আইসিজে) বিচারকরা ঘোষণা দিয়েছেন রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানোর জন্য মায়ানমারের বিচার করার এখতিয়ার রাষ্ট্রসংঘের সর্বোচ্চ আদালতের বিচারিক ক্ষমতা রয়েছে।

আইসিজের এই রায়ের ফলে রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগে গাম্বিয়ার দায়ের করা মামলায় মায়ানমারের বিচার করার প্রক্রিয়া শুরুর পথ পরিষ্কার হলো। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে মায়ানমারের সেনা অভিযানের মুখে প্রাণ বাঁচাতে সাত লাখ রোহিঙ্গা পার্শ্ববর্তী দেশ বাংলাদেরশ পালিয়ে যায়। এরআগে আগে একই কারণে চার লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেরশ পালিয়ে এসেছিল।

বতমানে বাংলাদেশে ১২ লক্ষ্যাধিক রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। মায়নমারের দাবি তুলেছিল, তারা যেহেতু আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের সদস্য নয়, সেহেতু তাদের বিচার করার এখতিয়ার এই আদালতের নেই। কিন্তু বিচারক জোয়ান ডনোগু বলেছেন, ১৩ জন বিচারক প্যানেল দেখেছে যে, ১৯৪৮ সালের গণহত্যা কনভেনশনের সব সদস্য গণহত্যা প্রতিরোধে কাজ করতে পারে এবং তা করা বাধ্যতামূলক। এই মামলায় আদালতের এখতিয়ার রয়েছে।

রায়ের সারাংশে তিনি বলেছেন, ‘গাম্বিয়া, গণহত্যা কনভেনশনের একটি রাষ্ট্রীয় পক্ষ হিসাবে, দাঁড়িয়েছে। আদালত এখন মামলার যোগ্যতা শুনানির জন্য এগিয়ে যাবে, এই প্রক্রিয়া শেষ করতে কয়েক বছর সময় লাগবে। আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের এই সিদ্ধান্ত বাধ্যতামূলক এবং দেশগুলো সাধারণত এসব সিদ্ধান্ত মেনে চলে। কিন্তু আদালতের ক্ষমতা সীমিত হওয়ায় এগুলো কার্যকর করার কোনও উপায় নেই।

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment