News Britant

Saturday, September 24, 2022

শীর্ষেন্দুর গল্প নিয়ে একক নাটক ও শেক্সপিয়রের ওথেলো অবলম্বনে পালানাটক

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#দেবলীনা ব্যানার্জী: রঙ্গমঞ্চের টান বাঙালির কাছে আবেগের টান। একসময় ছিল পুজো মানেই চারদিনের মায়ের আরাধনার সাথে নাটক,  যাত্রাপালা ও পালাগানের মরশুমে মজে থাকতো আবালবৃদ্ধবনিতা। মঞ্চের চৌহদ্দিতে ফুটে উঠতো রাম রাবণের যুদ্ধ, রাধা কৃষ্ণের প্রেম বিরহ থেকে শুরু করে নিত্যদিনের রোজনামচার গল্প ও একাধারে সবকিছুই। মঞ্চের বাইরে অগণিত দর্শক বুঁদ হয়ে থাকতো তাতে। সে সময় ছিল এক স্বর্ণযুগ। উত্তরসূরীরা আজও বয়ে নিয়ে চলেছেন সে ঐতিহ্য। আজ মাল্টিপ্লেক্স, ডিজিটাল ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জমানায় অভিনেতারা তাই বারবার ফিরে যেতে চান শেকড়ের কাছে, মঞ্চের চৌহদ্দিতে। যুগ পেরিয়ে আজও মঞ্চের দর্শক সেই চৌহদ্দিতেই শিল্পীদের দেখে আপ্লুত হন।

নাটকপ্রিয় বাঙালির কাছে সুখবর, ১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ছটায় মিনার্ভা থিয়েটারে দুটি নাটক মঞ্চস্থ হতে চলেছে। ভিন্ন স্বাদের দুটি গল্পের প্রথমটি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের একটি গল্প অবলম্বনে অমিত সাহার একক অভিনয়ে ‘আমাকে দেখুন’। পরিচালনা করেছেন রাহুল দেব ঘোষ। দ্বিতীয় নাটকটি হল ‘নয়নতারার গীত’, এটি একটি পালা। এটি পরিচালনা করেছেন বাংলাদেশের অতি পরিচিত নাট্য পরিচালক ও পালাকার সায়িক সিদ্দিকী। এই মঞ্চায়নের সামগ্রিক পরিকল্পনা ও প্রযোজনা করছে চাকদহ নাট্যজন ও এর কর্ণধার সুমন পাল। অভিনেতা অমিত সাহা বলেন, আমরা আজকাল এত ব্যস্ত হয়ে পরছি, যে কারোর দিকে তাকানোর সময় নেই। বর্তমান সময়ে আমরা মানুষকে দেখি ডাক্তার,  শিক্ষক, অভিনেতা, শ্রমিক, চাষী ইত্যাদি পেশাদার পরিচয়ে। এর বাইরেও যে পুরো মানুষটার আলাদা একটা সত্ত্বা আছে, তা খুঁজে দেখার সময় কোথায়! সেই মানুষটারই খোঁজ এই নাটকটাতে হবে।

অমিত আরও জানান, স্টেজে যারা অভিনয় করেন তারা অত্যন্ত দক্ষ শিল্পী। এতদিন থিয়েটারে পরিচালনা করেছি, কিন্তু স্টেজ পারফরম্যান্স কতটা দক্ষতা ও সূক্ষ্মতা দাবি করে তা এবার বুঝতে পারছি। আমার সেই দক্ষতারই চর্চা হচ্ছে, নতুন করে শেখার কাজ হচ্ছে। ডিরেকশন ও অর্গানাইজেশন আমার চর্চার মধ্যে ছিল, কিন্তু স্টেজ পারফরম্যান্স এবার যেন নতুন করে আয়ত্ত করছি। নিজের লিমিটেশন ও ভুলত্রুটিগুলোর মুখোমুখি হতে পারছি। এটা একটা বড় প্রাপ্তি।এরজন্য নাট্যজন ও সুমন পালকে ধন্যবাদ জানানো ছাড়া আমার আর কিছু করার নেই।

‘আমাকে দেখুন’ খুব সাধারণ একটি মানুষের গল্প। চাকদহ নাট্যজনের কর্ণধার সুমন পাল জানান, মানুষের অস্তিত্বের সংকট উঠে আসবে এই নাটকে। মানুষ তো দলবদ্ধ প্রাণী। একা একা সে বাঁচতে পারে না। বর্তমান সময়ে মানুষ আত্মকেন্দ্রিক হয়ে পড়ছে। করোনা এসে যেন তাতে শিলমোহর বসিয়ে দিয়েছে। অতিমারি মানুষকে আরও একা থাকার মন্ত্র শিখিয়েছে। এর থেকে উত্তরণ না হলে অস্তিত্বের সংকটে ভুগবে মানুষ। সহযোগিতা সহমর্মিতা একতার বোধগুলি  মুছে যাবে। এই বিষয় নিয়েই অমিত সাহার একক অভিনয়ে মঞ্চস্থ হচ্ছে ‘আমাকে দেখুন’। আশা করি দর্শকদের ভালো লাগবে।

দ্বিতীয় নাটক ‘নয়নতারার গীত’ পালা আঙ্গিকে পরিবেশিত হবে। শেক্সপিয়রের ওথেলো নাটকের মূল ভাবনাকে বাঙালিয়ানায় সাজিয়ে তুলেছেন নাট্যকার ও নির্দেশক সায়িক সিদ্দিকী। বিস্মৃতির আড়ালে হারিয়ে যাওয়া নানান পুরনো লোক আঙ্গিককে তুলে ধরা হবে এই পালায়। এর আগেও শেক্সপিয়রের নাটক নানান দেশের নানান সময়ের ভিত্তিতে নতুন নতুন আঙ্গিক ও দৃষ্টিকোণ থেকে পরিবেশিত হয়েছে। সেই ধারাতেই নতুন সংযোজন হতে চলেছে চাকদহ নাট্যজনের প্রযোজনা ‘নয়নতারার গীত’।

নাট্যজনের সুমন পাল জানান, চাকদহ নাট্যজনের বয়স পাঁচ বছর পুরনো। ভিন্ন স্বাদের বৈচিত্র্যময় নানা নাটক ইতিমধ্যে মঞ্চস্থ হয়েছে ও দর্শকদের প্রশংসা পেয়েছে। এর আগে ‘ভানু সুন্দরীর পালা’, ‘বিল্বমঙ্গল কাব্য’, ‘কমলী কথা’, ‘ব্যারিকেড’ ও অন্যান্য অনেক মঞ্চসফল প্রযোজনা করেছে নাট্যজন। দেবেশ চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় উৎপল দত্তের ‘ব্যারিকেড’ ৫০ বছর পূর্তিতে এই দল মঞ্চস্থ করে। নাট্যজনের আগামী দুই ভিন্নস্বাদের নাটক রঙ্গমঞ্চে কতটা আলোড়ন তোলে, তার জন্য অপেক্ষা করছেন নাট্যপ্রেমীরা।

Leave a Comment