News Britant

Thursday, December 8, 2022

কবিতাপাঠ আলোচনায় মুখর রায়গঞ্জ কবিকথার অষ্টম সাহিত্য বাসর

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#চন্দ্র নারায়ণ সাহা, রায়গঞ্জঃ রবিবার সন্ধ্যায় রায়গঞ্জ কবিকথার এক সাহিত্যবাসরে কবিতা, ছড়া, অনুগল্প পাঠ, সংগীতের পাশাপাশি জমে উঠলো সাহিত্যকে নিয়ে আলোচনা, প্রতি আলোচনাl এদিনের আলোচনার  বিষয়  ছিল বাংলা কবিতায় আধুনিকতাl বিষয়ভিত্তিক কথামুখ রচনা করলেন আয়োজক সংস্থা রায়গঞ্জ কবিকথা উত্তর দিনাজপুরের সম্পাদক কবি যাদব চৌধুরীl হাজার বছরেরও বেশি বাংলা কবিতার যাত্রাপথ নিয়ে আলোচনা হলl

চর্যাপদ দিয়ে যা শুরু এবং শ্রী কৃষ্ণকীর্তন, বৈষ্ণব পদাবলী, মঙ্গলকাব্য, ঈশ্বর গুপ্ত, মধুসূদন দত্ত, বিহারীলাল চক্রবর্তী হয়ে রবীন্দ্রনাথে এসে যে বাংলা ভাষা, বাংলা কাব্য সাহিত্য পরিণতি পেল, পেল বিশ্ব জুড়ে মর্যাদা তার উল্লেখ এলl কিন্তু রবীন্দ্রনাথে এসে বাংলা কবিতা থেমে গেল নাl বিশ্বযুদ্ধ পরিস্থিতি মানুষকে নিয়ে এই সময়ের কবিদের ভাবাতে শুরু করলl ইংরেজি সাহিত্যে এই সময় টি এস এলিয়ট, ইয়েটস, এজরা পাউন্ড যে আধুনিকতার উন্মেষ ঘটালেন, ইংরেজি সাহিত্যে শিক্ষিত কল্লোল যুগের কবিরা বাংলা কবিতায় সেই ধারা নিয়ে এলেনl

রবীন্দ্রনাথ তাঁর সাহিত্যে, কবিতায় মানুষকে যেভাবে এঁকেছেন, কল্যাণকামী হিসেবে, ঈশ্বর সদৃশ করে, মানুষের ওপর বিশ্বাস স্থাপন করতে বলেছেন, বিশ্বযুদ্ধে নৃশংস হত্যালীলা মানুষের সেই ইমেজ ভেঙে দিলl টি এস এলিয়টের দি ওয়েস্ট লান্ড পৃথিবীকে তুলে ধরল এক বন্ধ্যা, অনুর্বর ভূমি হিসেবে, হলোম্যান কবিতা মানুষকে চিত্রিত করলো আবেগ, মনুষত্বহীন খড়ে পূর্ন নিষ্প্রাণ জীব হিসেবেl মানুষের কদর্যতা, হিংসা, দ্বেষ, হতাশা কবিতায় ভাষা পেলl

আধুনিকতার সংজ্ঞা দিলেন আবু সায়ীদ, “কালের দিক থেকে মহাযুদ্ধ উত্তর এবং ভাবের দিক থেকে রবীন্দ্র প্রভাব মুক্তl” রবীন্দ্রনাথ আধুনিকতার নির্ণয়ে কালের থেকে মর্জি অর্থাৎ ভাবকে অধিক গুরুত্ব দিলেনl সাহিত্যের পথে গ্রন্থে আধুনিক কাব্য প্রবন্ধে তিনি বললেন, “পাঁজি মিলিয়ে আধুনিকতার সীমা নির্ণয় করবে কে? এটা কালের কথা ততটা নয়, যতটা ভাবের কথাl নদী সামনের দিকে সোজা চলতে চলতে হঠাৎ বাঁক ফেরে, সাহিত্যও তেমনি বরাবর সিধে চলে নাl যখন সে বাঁক নেয় তখন সেই বাঁকটিকেই বলতে হবে মডার্ন, বাংলায় বলা যাক আধুনিকl এই আধুনিকতা সময় নিয়ে নয় মর্জি নিয়েl”

অনুষ্ঠান মঞ্চে বিশেষ অতিথির আসন গ্রহণ করেন কবি আশিষ সরকার, সমাজকর্মী নীরদ রঞ্জন রায়, কবি সমর আচার্য্য, পূর্বাশা প্রগতি মঞ্চের সম্পাদক সজল সরকার প্রমুখl অনুষ্ঠানে প্রায় সকল বক্তা অসুস্থ কবি দেবেশ কান্তি চক্রবর্তীর বিষয়ে তাঁদের দুঃশ্চিন্তা ব্যক্ত করেন, যেভাবে ব্যাক্তিগত পর্যায়ে ও সাংগঠনিকভাবে রায়গঞ্জ তথা অন্য অঞ্চলের কবি সাহিত্যিকেরা অসুস্থ কবির সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন তার জন্য তাদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ও কবির দ্রুত আরোগ্য কামনা করেনl

এদিনের অনুষ্ঠানে রায়গঞ্জ মোহনবাটী হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অমল বিশ্বাস, যিনি এ বছর পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক শিক্ষারত্ন সম্মানে ভূষিত হয়েছেন, তাঁকে রায়গঞ্জ কবিকথার পক্ষ থেকে সম্মাননা জ্ঞাপন করা হয়l অমল বিশ্বাস মহাশয়ের বিবিধ কাজকর্ম ও তাঁর ব্যাক্তিত্বের ওপর বিশেষ আলোকপাত করেন অধ্যাপক  সুকুমার বাড়ইl

উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশন করেন ধরিত্রী চৌধুরীl এছাড়াও সঙ্গীত পরিবেশন করেন পার্থ প্রতিম বোস ও শর্মিষ্ঠা চক্রবর্ত্তী দেl সভায় স্বরচিত রচনা পাঠ করেন নীরদ রঞ্জন রায়, সমর আচার্য্য, সুরঞ্জন চক্রবর্ত্তী, দেবাশীষ সরকার, আভা সরকার মন্ডল, সুদেব কুমার রায়, বিজয় সরকার, প্রতিমা বিশ্বাস সাহা, যাদব চৌধুরী, সজল সরকার, গৌতম চক্রবর্তী, গোলাপ সিংহ প্রমুখl বিজয় সরকারের সুন্দর সঞ্চালনা অনুষ্ঠানে প্রাণ সঞ্চার করেl

Leave a Comment