News Britant

পৌষ পার্বণে রকমারি পিঠে আমবাঙালী কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন রায়গঞ্জের গৃহবধূ

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#সুমন রায়, রায়গঞ্জঃ পৌষ পার্বণ উপলক্ষ্যে বাঙালির ঘরে ঘরে আজ পিঠেপুলি তৈরির দিন। তবে বর্তমান কর্মব্যস্ত সময়ে যারা পৌষ পার্বণের দিনে পিঠে বানিয়ে উঠতে পারছেন না তাদের কাছে অনলাইনের মাধ্যমে পিঠে পৌঁছে দিচ্ছেন রায়গঞ্জের উদয়পুরের গৃহবধূ সোমা সরকার। একাহাতে পাটিসাপ্টা, রসগকুল, দুধগকুল, রসবড়া, দুধপুলি, নলেনগুড়ের পায়েস, মালপোয়া সহ নানান রকম পিঠে বানিয়ে কাস্টমারের কাছে কখনও স্কুটি করে পৌঁছে দিচ্ছেন সোমাদেবী আবার অনেক কাস্টমার সোমা দেবীর বাড়িতে এসেও নিয়ে যাচ্ছেন পিঠে।

শীতের মধ্যে রসনাপ্রিয় বাঙালির পিঠে খাওয়ার চাহিদা থাকলেও আজ পৌষ পার্বণ উপলক্ষ্যে পিঠের চাহিদা অন্যান্য দিনের তুলনায় অনেক বেশি বলে জানান সোমা সরকার। আর তাই সংসারের সব কাজ সামলে নানান রকম পিঠে বানিয়ে চলছেন সোমা দেবী। লকডাউনের সময় থেকেই তিনি বিভিন্ন খাবার হোম ডেলেভারি করতে শুরু করেছিলেন তবে লকডাউন উঠে যাওয়ায় সেসব খাবারের অত চাহিদা না থাকায় তিনি পিঠের নানা রকম রেসেপি বানাতে শুরু করেন।

সামাজিক মাধ্যমে এবং বিভিন্ন গ্রুপে সেই পিঠে বানানোর খবর পোস্ট দিতেই চাহিদা বাড়তে থাকে বলে জানান সোমা দেবী। গত এক বছর ধরে তিনি এই পিঠে বানি ডেলেভারি করছেন বলে জানান। সোমা দেবীর এই সুস্বাদু পিঠে খেতে রায়গঞ্জ বাদেও বিভিন্ন জায়গা থেকে পিঠে নিতে আসছেন অনেকে।কালিয়াগঞ্জ কলেজের অধ্যাপনার কাজ করেন পৌলমী মুখার্জি।তিনিও মাঝে মাঝে সোমা দেবীর কাছ থেকে পিঠে নিয়ে যান।

আজকের দিনে রীতি অনুযায়ী পিঠে খাওয়ার দিন তবে পিঠের এতো রেসেপি তিনি নিজে করে উঠতে পারবেন না বলে সোজাসুজি চলে এসেছেন সোমা দেবীর বাড়িতে। অধ্যাপিকা পৌলমী মুখার্জি জানান, সামজিক মাধ্যমে তিনি সোমা দেবীর এই পিঠে বানানোর বিষয়টা জানতে পারেন তারপর থেকে প্রায়ই পিঠে নিয়ে যান তবে আজ যেহেতু পৌষ পার্বণ তাই পিঠের নানান রকম আইটেম বানানো তার পক্ষে সম্ভব না এবং এতো সুস্বাদু বানানোও সম্ভব না তাই তিনি কালিয়াগঞ্জ থেকে রায়গঞ্জে এসেছেন পিঠে নিতে। বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বন, তবে পৌষ পার্বণের দিনে সোমা দেবীর এই পিঠে হোম ডেলেভারি পেয়ে খাদ্যরসিক বাঙালি পিঠে খাওয়া থেকে যে বঞ্চিত হবেননা তা একপ্রকার বলা যেতেই পারে।

Leave a Comment