News Britant

Friday, January 27, 2023

অসচ্ছলতার মাঝে লড়াই করে জিতলো সংগ্রামী অভিষেক

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#মালবাজার: সংসারে অসচ্ছলতা ছিল। নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার। বাবা পুরসভার অস্থায়ী কর্মী। স্বল্প বেতন পান।  সংসার চালাতে পরিবার বাড়িতেই ছোট্ট মুদি দোকান চালায়। তা সামলাতেও একসময় হয়েছে অভিষেককে। তবু স্বপ্নে পথে আগুয়ান হওয়া থামায় নি সে। সফলতাও মিলেছে। মাল শহরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পানোয়ার বস্তি এলাকার ২৫ বছর বয়সী অভিষেক প্রসাদ রেল বিভাগের স্টেশন মাস্টার পদে যোগ দিয়েছে। সমস্যা সংকুল পথে একাগ্র থাকার নিদর্শন সে। তরুণের সাফল্যকে কুর্নিশ জানাচ্ছে সকলেই।
মাল শহরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পানোয়ার বস্তি এলাকায় বাড়ি অভিষেক প্রসাদের। বাবা সঞ্জয় প্রসাদ পুরসভার অস্থায়ী কর্মী। মা পুষ্পা প্রসাদ গৃহবধূ ।দুই বোন নিশা এবং খুশবু পড়ুয়া। ১৯৯৭ সালে জন্ম অভিষেকের  ছোটবেলার থেকেই মেধাবী। বাড়ির অদূরেই হিন্দি মাধ্যমের বিএল উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র সে। ২০১৩ সালে মাধ্যমিকে ৭০% নম্বর পেয়েছিল। উচ্চমাধ্যমিকে ৭৪ শতাংশ নম্বর নিয়ে ২০১৫ সালে উত্তীর্ণ হয়। এরপর মাল পরিমল মিত্র স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ে ইংরেজিতে অনার্স সম্পূর্ণ করেছে। স্নাতক হয়েই বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে শুরু করে।
বাড়িতে রয়েছে ছোট্ট দোকান। সংসার অসচ্ছল। দোকানের উপর অনেকটা সংসারের ভার নির্ভর। অভিষেক দোকানে বসেই পড়াশোনা করতো। পাশাপাশি দোকানও সামলাতেও হয়েছে। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার জন্য কোন কোচিং সেন্টারে যোগ দেয় নি সে।  নিজেই বই নিয়ে পড়াশোনা করেছে। মাঝেমধ্যে ইউ টিউব বা অন্য মাধ্যমের সহযোগিতা নিয়েছে। বেশ কয়েকটি প্রতিযোগিতা মূলক লেখা পরীক্ষার সফল হয়। মূল লক্ষ্য ছিল রেল বিভাগের স্টেশন মাস্টার। শেষ পর্যন্ত সদ্য সেই লক্ষ্য পূর্ণ হয়েছে।
কয়েক ধাপে সফল পরীক্ষা পর্ব সম্পূর্ণ হয়েছে। নিয়োগপত্র পাবার পর সদ্য রঙ্গিয়াতে গিয়ে স্টেশন মাস্টারের পদে যোগদান করেও এসেছে। এরপর প্রশিক্ষণ পর্ব শুরু হবে। দুদিনের জন্য বাড়িতে ফিরেছে সে। সকলেই অভিষেকের  সাফল্যে খুশি। মা পুষ্পা প্রসাদ বললেন ও ছোটবেলা থেকেই মেধাবী। পড়াশুনা করতে ভালোবাসে। ওকে আমাদের বাড়তি কিছু বলতেই হয় নি ।বাবা সঞ্জয় প্রসাদের কথায়, ও সংগ্রামের মাধ্যমেই সফল হয়েছে। অভিষেকও বাড়তি কোন কৃতিত্বের দাবি করে না। অভিষেকের কথায়, আমার লক্ষ্য ছিল স্টেশন হওয়ার।
তা পূরণ হয়েছে। তাই আমি খুশি। আমি মনে করি লক্ষ্য স্থির থাকলে নিবিড় প্রস্তুতি নিলে অনেকে সফল হতে পারে। অভিষেকের সাফল্যকে কুর্নিশ জানাই বিভিন্ন মহল। অভিষেককে ছোটবেলা থেকেই খুব কাছ থেকে দেখেছেন মাল শহরের কৃতি শিক্ষা ব্রতী মুন্না ঠাকুর মুন্না বাবু বর্তমানে হুগলি জেলার একটি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক মুন্না বাবু বললেন, আমি ছোটবেলা থেকেই দেখেছি অভিষেক একাগ্র চিত্তে পড়াশোনা করত। পরিশ্রমের ফসলই সে পেয়েছে।

Leave a Comment