News Britant

Friday, January 27, 2023

গবেষণায় বড় অনুদান পেল রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় 

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#চন্দ্র নারায়ণ সাহা, রায়গঞ্জঃ রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনার পর প্রথম ন্যাক রিপোর্টে ‘ডি’ গ্রেড পেলেও গবেষণার ক্ষেত্রে একেরপর এক কেন্দ্রীয় অনুদান তুলে আনছে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ। এবার গণিত বিভাগের গবেষণার জন্য কেন্দ্র সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের সায়েন্স এন্ড রিসার্চ বোর্ড থেকে পেল ২১ লক্ষ ৩৬ হাজার ২২২ টাকার অনুদান। এদিন রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিবন্ধক ডঃ দুর্লভ সরকার যখন এমন অনুদানের প্রসঙ্গ জানালেন, তখন দৃশ্যতই ভীষণ খুশি দেখাচ্ছিল তাঁকে।
তিনি বলেন, আমাদের গবেষণার ক্ষেত্র ক্রমাগত প্রসারিত হচ্ছে। নতুন নতুন বিষয়ে গবেষণা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাচ্ছে। এমন অনুদান আমাদের গবেষকদের গবেষনাকে উৎসাহিত করবে। গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. রিপন সাহার উদ্যোগেই এই অনুদান পাওয়া সম্ভব হয়েছে বলেও জানান তিনি। এদিকে ড. রিপন সাহা বলেন, ভারত সরকারের পক্ষ থেকে গণিতের গবেষণার জন্য আনুমানিক ২২ লক্ষের একটা প্রজেক্ট পেয়েছি। এই প্রকল্পে আমি প্রধান তদন্তকারীর ভূমিকায় এবং টিসিজি ইনস্টিটিউট কলকাতার ডাঃ সত্যেন্দ্র কুমার মিশ্র সহ-প্রধান তদন্তকারীর ভূমিকায় রয়েছে।
“নন-অ্যাসোসিয়েটিভ গ্রীণ ফাংটোর এবং সম্পর্কিত কাঠামোর কোহোমোলজি” শিরোনামের আমাদের প্রকল্প প্রস্তাবটি ‘বিজ্ঞান ও প্রকৌশল গবেষণা বোর্ড’ (এস.ই.আর.বি), বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগ (ডি.এস.টি), ভারত সরকারের দ্বারা সুপারিশ করা হয়েছে। এই প্রকল্পটি DST-SERB কোর রিসার্চ গ্রান্ট (সি.আর. জি) এর অধীনে পড়ে। এটি আমাদের বিভাগের প্রথম প্রকল্পের পাশাপাশি আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম DST-SERB কোর রিসার্চ গ্রান্ট (CRG)। আমাদের গবেষণা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার জন্য ল্যাপটপ, প্রিন্টার, গাণিতিক সফ্টওয়্যার ইত্যাদির মতো প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেনার জন্য আমরা ২ লাখ টাকার বাজেট পেয়েছি। এছাড়াও বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক ইভেন্টে যোগদান এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে গবেষণা পরিদর্শনে ভ্রমণ অনুদান রয়েছে। আমরা জার্নাল, কাগজপত্র ইত্যাদি কেনার জন্য কন্টিজেন্সি এবং কনজিউম্যাবল ফান্ডও পাব।
এই প্রকল্পে আমাদের সহায়তা করার জন্য আমরা একজন জুনিয়র রিসার্চ ফেলো (JRF) নিয়োগ করতে পারি।তিনি আরও বলেন, এই প্রকল্পে DST-এর বৈজ্ঞানিক সামাজিক দায়বদ্ধতা (SSR) নীতি অনুসারে, আমি স্কুল ও কলেজের ছাত্রদের জন্য কর্মশালা পরিচালনা করব, জনপ্রিয় বিজ্ঞান বক্তৃতা স্কুল/বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের প্রদান করব, শিক্ষক সমৃদ্ধকরণ কর্মশালা পরিচালনা করব। গবেষনার জন্য বিভিন্ন সময়ে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে গণিতবিদদের আমন্ত্রণ জানাব। এই এস.এস.আর কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আমরা একটি অতিরিক্ত তহবিল পাব। এই গবেষণা তহবিল অবশ্যই আমাকে আমার গবেষণা খুব মসৃণভাবে পরিচালনা করতে সাহায্য করবে এবং আমাকে আরও মানের গবেষণা চালিয়ে যেতে অনুপ্রাণিত করবে।
আমি খুব আশাবাদী যে এই প্রকল্পের ফলাফল সমগ্র গণিত সম্প্রদায়ের পাশাপাশি পদার্থবিদদের জন্যও আগ্রহের বিষয় হবে। উল্লেখ্য, ড. রিপন সাহা এর আগে ২০১৮ সালে স্পেনের বার্সেলোনা শহরের সেন্টার অফ ম্যাথেমেটিকস, উজবেকিস্তান বিশ্ববিদ্যালয়, ইটালির আন্তর্জাতিক সেন্টার অফ থিওরিটিক্যাল ফিজিক্সে গিয়ে গবেষণার খুঁটিনাটিতে সরাসরি অংশ নিয়ে দেশের মান বাড়িয়েছিলেন। অধ্যাপক রিপন সাহা এই সফলতার জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক সঞ্চারী রায় মুখার্জি, প্রাক্তন উপাচার্য অনিল ভুঁইমালী, নিবন্ধক ডঃ দুর্লভ সরকার, ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিক্যাল ইনিস্টিউটের অধ্যাপক গৌতম মুখার্জি সহ রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকর্মী ও পরিবারের সদস্যদের। এই অনুদান পেয়ে এবার গণিত বিভাগের গবেষক ও পড়ুয়ারা কতটা উপকৃত হয়, সেদিকেই তাকিয়ে সংশ্লিষ্ট মহল।

Leave a Comment