News Britant

Thursday, December 8, 2022

ফের প্রকাশ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল

Listen

( খবর টি শোনার জন্য ক্লিক করুন )

#ইসলামপুর: ফের প্রকাশ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলার রাজনৈতিক মহলে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। রাজ্যের শ্রমদপ্তর এর প্রতিমন্ত্রী গোলাম রাব্বানী এমনকি উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি কানাইলাল আগরওয়াল এবং বিভিন্ন নেতাদের বিরুদ্ধে একই দলের হয়েও কামান দাগলেন ইসলামপুরে তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক আব্দুল করিম চৌধুরী। ইসলামপুর ব্লকের পন্ডিত পোতা দুই অঞ্চলের অমলঝারী এলাকায় একাধিক কাজে চরমভাবে দুর্নীতি হয়েছে। এই অভিযোগ তুলেছেন ওই এলাকাটি করিম পন্থী নেতা নুর আলম। আর এর জেরেই তাকে উদ্দেশ্য করে গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রাজি বেগমের স্বামী রশিদ আলম তার ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

এরপর এই ঘটনার বিচার চেয়ে ইসলামপুরের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক আব্দুল করিম চৌধুরীর বাড়ির সামনে বৃহস্পতিবার ধর্নায় বসেন তিনি। যদিও পন্ডিতপোতা দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের স্বামী তথা প্রতিনিধি রশিদ আলম জানান, ওই গ্রাম পঞ্চায়েতে অনেক উন্নয়ন মূলক কাজ হয়েছে। কোনো দুর্নীতি হয়নি। এ দিন তাদের বিরুদ্ধে ওঠা হামলার অভিযোগ ভিত্তিহীন। বরং নুর আলম সহ বেশ কয়েকজন এসেছিল তাদের উপর হামলা চালাতে। অন্যদিকে সংশ্লিষ্ট বিষয়কে সামনে রেখে আব্দুল করিম চৌধুরী জানান, তার বিধানসভা এলাকায় কিছু হলেই মন্ত্রী গোলাম রাব্বানী ছুটে আসছেন। এখানে তার এলাকায় তার অনুমতি ছাড়া অন্য বিধানসভার বিধায়ক কেন আসবে বলেও তিনি প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ আছে যার যার বিধানসভায় সেই কাজ করবে।

নুর আলমকে হামলার ঘটনায় মন্ত্রীর উস্কানি রয়েছে বলেও তিনি জানান। নুর আলম সম্পর্কে বিধায়ক বলেন, সে একজন প্রতিবাদী নেতা। যিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে সবসময় লড়াই করেন। এদিন করিম চৌধুরী তার বক্তব্যে নিজের দলের মন্ত্রী এবং অন্যান্য নেতৃত্বকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন। এ ধরনের ঘটনা গুলির জন্য তারাই নাকি সন্ত্রাস করে চরম অশান্তি সৃষ্টি করছে এলাকাগুলিতে। তিনি প্রধানের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে নালিশ জানাবেন বলেও জানান।  বক্তব্য প্রসঙ্গে এদিন ইসলামপুরের নেতা জাকির হোসেন এবং জেলা সভাপতি কানাইলাল আগরওয়ালকেও আগারওয়াল একহাত নেন তিনি। তিনি বলেন, নিজেদের দলের মধ্যেই কিছু নেতা চরমভাবে অশান্তি করছে।  যারা দল থেকেই কামাই করে খায়। ভাগবাটোয়ারাতে অংশ নেয়।যদিও এ প্রসঙ্গে রাজ্যের শ্রম দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী গোলাম রাব্বানি জানান, এটি অভিযোগ জানাবার একটি ভুল পদ্ধতি।

কোনও অভিযোগ থাকলে তা বরং দলের জেলা সভাপতি বা রাজ্য সভাপতি কিংবা সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী কে জানানো উচিত। তা না জানিয়ে সরাসরি মিডিয়াকে তিনি জানিয়েছেন এটা পদ্ধতি নয়। তিনি বলেন, ইসলামপুর বিধানসভায় কোন প্রশাসনের সভা বা জেলা সভাপতি সাংগঠনিক কাজে তাকে ডাকলে তিনি যান। এছাড়া অন্য কোন ক্ষেত্রে তিনি যান না ।নুর আলম নামে তিনি কাউকে চেনেন না এবং সেই ঘটনা তিনি যে সমর্থন করছেন এটা করিম চৌধুরীকে কে বলল বলেও তিনি প্রশ্ন তোলেন। তিনি আরো দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, আমি আব্দুল করিম চৌধুরীর ছেলের বয়সী ।তিনি ডাকলে  বা কিছু বললে আমি শুনতাম। কিন্তু একজন সিনিয়র বিধাযকের কাছ থেকে এমনটা শুনে আমি বড় কষ্ট পেলাম। অথচ তিনি আগে অন্য দলে থাকলেও তাকে তৃণমূলে নিয়ে আসার ক্ষেত্রে এবং টিকিট পাওয়ার ক্ষেত্রে তিনিই  প্রস্তাব দিয়েছিলেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে।

 

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment