News Britant

Wednesday, August 17, 2022

মেলেনি সরকারি আবাস, ঝুপড়ি ঘরে রাতকাটে দুধুন্ডার মহিলার

Listen

#হেমতাবাদঃ দুস্থ বাসিন্দাদের জন্য সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার পাশাপাশি সরকারি আবাসের ব্যবস্থা থাকলেও দীর্ঘদীন ধরে কোনো সরকারি সুযোগ সুবিধা না পেয়ে ঝুপড়ি ঘরে রাত কাটাচ্ছে হেমতাবাদ ব্লকের দুধুন্ডার আদিবাসি পাড়ার বাসিন্দা বুধনি মার্ডি। জানাগেছে, ঘড় না থাকায় একটি মাটির দেওয়ালের উপর ত্রিপাল দেওয়া ঝুপড়ি ঘড়ে দিনরাত কাটে বুধনি মার্ডির। ঝড় বৃষ্টির দিনও একমাত্র ভরসা এই ঝুপড়ি ঘড়।

বুধনি মার্ডি বলেন, প্রশাসনের কাছে বহুবার আবেদন জানিয়েও ঘর পাইনি। ভোট আসলে ঘর ও সরকারি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি মেলে। ভোট পর্ব শেষ হলে আর কিছুই পাই না। তাই আর প্রশাসনের উপর ভরসা না রেখে এই ঘড়েই থাকছি। বুধনি মার্ডির এই করুন পরিস্থিতি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রাও। প্রশাসনের হস্তক্ষেপে যাতে এই ঝুপড়ি ঘর থেকে বেড়িয়ে ভালো ঘরে থাকার ব্যবস্থা করা হয় তার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

এই বেপারে হেমতাবাদের বিডিও পৃথ্বীস দাস বলেন, ইতিমধ্যে ব্লক প্রশাসনের পক্ষথেকে ওই মহিলার বাড়িতে গিয়ে কথা বলে আসা হয়েছে। কিছু খাদ্য সামগ্রী পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তাকে বিডিও অফিসে ডাকা হয়েছে মঙ্গলবার। এরপরে তাকে প্রয়োজনীয় সরকারি সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করা হবে।

বিজেপির ১৭ নং হেমতাবাদ মণ্ডল কমিটির সভাপতি প্রশান্ত কুমার ভৌমিক বলেন, রাজ্যে নাকি চারিদিকে উন্নয়ন? এই তার আসল চিত্র। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘরের সার্ভেতে ওই মহিলার নাম নেই। ওই দুস্থ মহিলা কাটমানি দিতে পারেনি বলে সরকারি ঘর তাকে দেওয়া হয়নি। তৃণমূলের নেতাদের নির্দেশে যাদের ঘর দরকার নেই তারা সরকারি পাকা ঘড় পাচ্ছে। যাদের প্রয়োজন তারা এইভাবে ঝুপড়ি ঘরে রাত দিন কাটাচ্ছে। আমি বিডিও কে জানিয়েছি ওই মহিলার সমস্যার কথা। যদি সরকার থেকে কিছু না পায়, তবে বিজেপি নেতৃত্ব চাঁদা তুলে ওই মহিলাকে ঘর তৈরি করে দিবে।

এবেপারে তৃণমূলের হেমতাবাদ ব্লক কার্যকারি সভাপতি নারায়ণ চন্দ্র দাস বলেন, প্রশান্ত বাবু তৃণমূলের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছে তা ভিত্তিহীন। বিডিও সাহেব ইতিমধ্যে ওই মহিলার বাড়িতে আধিকারিক পাঠিয়ে মহিলার সাথে কথা বলেছে। ওই মহিলা যাতে সরকারি সুযোগ সুবিধা থেকে বিঞ্চিত না হয় সেই বেপারে আমাদের প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে হবে।

 

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment