News Britant

Thursday, August 11, 2022

লকডাউনে জীবন ওলটপালট, ক্যুরিয়ারের ডেলিভারি গার্ল ক্যারাটের ব্ল্যাকবেল্ট ছাত্রী

Listen

#রায়গঞ্জ: ক্যারাটে নিয়ে জীবনে এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল স্মৃতিকণা কুন্ডু। কিন্তু সংসারে অভাব ও লকডাউনের জেরে আপাতত সে স্বপ্ন অধরাই মনে হচ্ছে। কিছুদিন ধরেই রায়গঞ্জ শহরে একজন অল্পবয়সী একজন মেয়েকে সাইকেলে করে ঘাড়ে পার্সেলের ব্যাগ নিয়ে ঘুরতে দেখে অনেকেই অবাক হচ্ছিলেন। ক্যুরিয়ারের ডেলিভারি বয়দের দেখেই অভ্যস্ত সবাই, সেখানে ডেলিভারি গার্ল কৌতূহল জাগায় বৈকি। ক্যুরিয়ার কোম্পানিতেও ৬০ জন কর্মীর মধ্যে সেই একমাত্র মেয়ে।নেই তার স্কুটি বা বাইক। তাই সাইকেলে করে ঘাড়ে পার্সেলের ভারী ব্যাগ নিয়ে এ পাড়া থেকে সে পাড়া ছুটতে হয়। স্বপ্ন দেখে স্মৃতিকণা, সে ও তার ভাই ভবিষ্যতে দাঁড়াবেই। তাদের সংসারে এই কষ্ট আর থাকবে না।

 

অতিমারীর আবহে কৃতী ছাত্র থেকে কৃতী খেলোয়াড় অনেকেই পরিবারকে বাঁচাতে রোজগারের জন্য পথে নামছেন। পড়াশুনো করে নিজের পায়ে দাঁড়াবার  ইচ্ছে থাকা সত্বেও সেই ইচ্ছেকে পাথরে চাপা রেখে দুটো পয়সা আয়ের জন্য মানুষের দুয়ারে দুয়ারে যেতে হচ্ছে।অল্প বয়সে স্মৃতিকণা ক্যারাটের ব্ল্যাকবেল্ট অর্জন করে। কিন্তু করোনা সংক্রমণের জেরে  লকডাউনে মায়ের অনলাইন  শাড়ি, কাপড়ের ব্যবসা বন্ধ। তাই সংসারের হাল ধরতে পড়াশুনো, ক্যারাটে সব ছেড়ে সে বেছে নিয়েছে সেলস গার্লসের কাজ।

সকাল সাড়ে আটটা থেকে রাত সাড়ে আট টা পর্যন্ত রায়গঞ্জের পাড়ায় পাড়ায় চিঠি ও পার্সেল বিলির পর বাড়ি ফিরে আসে। সংসারের হাল ধরতে এখন ভরসা স্মৃতিক্ণা। পড়াশুনোয় ছেদ ঘটেছে তার ও ভাইয়ের। কিন্ত নিজের পায়ে যে দাঁড়াতেই হবে। তাই কাজের ফাঁকে পড়াশুনোটা ধরে রাখতে হবে এই অদম্য ইচ্ছাকে পূরণ করতে জেনারেল লাইনে পড়াশুনো করতে চায় তারা।তবে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য রায়গঞ্জের এই স্কুল থেকে সেই স্কুল ঘুরলেও কেউই তাদের ভর্তি নিতে চাইছে না। মা লক্ষ্মী কুন্ডু আবেদন করেছেন কেউ যদি ছেলে মেয়েকে স্কুলে ভর্তির ব্যবস্থা করে দেন এবং ছোট্ট একটা দোকানের জন্য জায়গা দেন তাহলে দুই ছেলে মেয়েকে নিয়ে সৎভাবে বাঁচতে পারবেন তিনি।

 

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment