পর্যটকদের নতুন গন্তব্য দলবচান্দ পাহাড়ি গ্রাম

#মালবাজার: এক ঘেয়ামি ঘুরাঘুরি থেকে নতুন প্রকৃতিক মনোরম জায়গার খোজ পাওয়া গেলো কালিম্পং জেলায়। বলতে গেলে পর্যটকদের ঘুরতে যাবার নতুন ঠিকানা কালিম্পং জেলার এক নাম্বার  ব্লকের নিমং গ্রাম পঞ্চায়েতের দলবচান্দ গ্রামের শিকারিটার এলাকা।
পর্যটকেদের থাকার  জন্য রয়েছে ১০ টি টেন্ট। রয়েছে ছোট হোমষ্টেও। স্থানিয় যুককেরাই আস্তে আস্তে এই পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুলছে। সহযোগীতার হাত বারিয়ে দিয়েছে নিমং গ্রাম পঞ্চায়েত।  এই টুরিজম স্পটের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে ঘীস খোলা। ঘীস খোলা জলের কলকলানী জলের শব্দে মুগ্ধ হবে পর্যটকের। চার দিকে পাহাড়ে ঘেরা এই টুরিজম স্পট রবিবার উদবোধন করেন নিমং গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান দেবি ডোলমা তামাং। উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য অতিথিবৃন্দ এবং পর্যটকেরা। এদিন নেপালী নৃত এবং সংগীতের মাধ্যমে মুখোরিত হয়ে ওঠে দলবচান্দ গ্রাম।
উদ্যোক্তার পক্ষে দীলিপ তামাং  বলেন পর্যটকদের জন্য নতুন ঠিকানা এই শিকার টার। সব সময় ঠান্ডা পরিবেশ এই জায়গায়। নিউ জলপাইগুড়ি রেল স্টেশন থেকে, এই শিকারটার  মাত্র ৪০ কিলোমিটার।  যে কোন গাড়ি খুব সহজেই চলে আসবে এখানে। পর্যটকদের থাকার জন্য রয়েছে ১০ টি টেন্ট। থাকা খাওয়া নিয়ে এক জন পর্যটকদের খরচ ১২০০ টাকা। পাশাপাশি এখানে পিকনিক স্পট রয়েছে। পর্যটকেরা ঘীস খোলায় সুইমিং করতে পারবে। এখান থেকে খুব সহযে গরুবাথান, ঝান্ডি, লাভা, লোলেগাও ঘুরতে যেতে পারবে।
নিমং গ্রাম পঞ্চায়েতর  প্রধান দেবী ডোলমা তামাং বলেন, রাস্তাঘাট কিছুটা খারাপ আছে। তাই বিভিন্ন দপ্তরের জানিয়েছি, পর্যটকদের যাতায়াতের সুবিধার্তে রাস্তাগুলো ঠিক করে দিতে। এই টুরিজমের জন্য এলাকার বেকারত্ব কমবে। বহু যুবক যুবতি কাজের সন্ধানে ভিন্ন রাজ্যে চলে গেছে তারা এবার নিজের গ্রামে ফিরবে। গ্রাম পঞ্চায়েত থেকেও সহযোগিতা করা হবে।
News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Choose অবস্থা