সচেতনতা প্রচার সত্ত্বেও জঙ্গলে কাঠ সংগ্রহে গিয়ে হাতির হানায় মহিলার মৃত্যু

#মালবাজার: বনদপ্তরের সচেতনতা প্রচার সত্ত্বেও আবারও জঙ্গলে জ্বালানি কাঠ সংগ্রহে গিয়ে মৃত্যু হলো এক মহিলার। মৃতার নাম লুতফার বেগম (৩২)। বাড়ি মাল ব্লকের কুমলাই গ্রাম পঞ্চায়েতের কুমার পাড়া এলাকায়। স্থানীয় ও বনবিভাগ সুত্রে জানাগেছে, মৃতা মহিলা শুক্রবার বিকালে জ্বালানি কাঠ সংগ্রহ করতে বনবিভাগের লাটাগুড়ি রেঞ্জের বড়দীঘি বিটের জঙ্গলে যায়।
বড়দীঘি বিটের ৩ নম্বর কম্পারমেন্ট এলাকায় কাঠ সংগ্রহের সময় হটাৎ এক বুনো হাতির সামনে পড়ে যায়। হাতিটি তাকে আক্রমণ করে পদপিষ্ট করে মারে। সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়ি ফিরে না আসায় বাড়ির লোকজন খুজতে বের হয়ে জানতে পারে হাতির আক্রমণে মারা গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছান লাটাগুড়ি রেঞ্জের রেঞ্জার শুভ্রশংখ দত্ত এবং মেটেলি থানার পুলিশ। রাতেই মৃতদেহ উদ্ধার মেটেলি থানায় নিয়ে আসা হয়। শনিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্যে পাঠানো হয়।
বনবিভাগ সুত্রে জানাগেছে, বনের ভিতরে প্রবেশ না করতে নিয়মিত প্রচার চলছে। তারপরও কিছু মানুষ বনের ভিতরে কাঠ, ঘাস সংগ্রহের করতে যায়। এটা করা উচিত নয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ৩জানুয়ারি পানঝোড়া বনে ঘাস কাটতে গিয়ে হাতির আক্রমণে দুইজন মারা যায়। তারপর বনবিভাগ থেকে প্রতিটি বনবস্তি ও গ্রামাঞ্চলে সচেতনতা প্রচার করা হয়। তারপর এই ঘটনায় অনেকেই বিশ্মিত।
চালসার পরিবেশ প্রেমী মানবেন্দ্র দে সরকার বলেন, বার বার সচেতনতা প্রচার সত্বেও মানুষ বনে অবৈধ ভাবে বনের ভিতরে ঘাস, কাঠ আনতে যায়। ফলে ঘটে মর্মান্তিক ঘটনা, সেটা কাম্য নয়। তবে মানুষকে আরও সচেতন হতে হবে। না হলে, আরও ঘটবে। গত দুইমাসে বেশ কয়েকজন মারা গেছে।
News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Choose অবস্থা