বকেয়া বেতন ও পেনশনের স্থায়ী সমাধানের দাবিতে বিক্ষোভ পৌর কর্মচারীদের

#দেবলীনা ব্যানার্জী, রায়গঞ্জ: বকেয়া বেতন ও বকেয়া পেনশনের দাবিতে রায়গঞ্জ পৌরসভার সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অংশ নিলেন অস্থায়ী পৌর কর্মীরা। বিগত দুই মাস থেকে বেতন পাচ্ছেন না পৌর কর্মীরা, পাশাপাশি তিন মাস ধরে পেনশন বন্ধ রয়েছে অবসরপ্রাপ্ত পৌরকর্মীদের। এই অভিযোগ সহ মোট চার দফা দাবিতে শনিবার দুপুর দুটোয় বিক্ষোভ কর্মসূচি গ্রহণ করেন পৌর কর্মীরা।

বেতন ও পেনশনের পাশাপাশি প্রায় তিন কোটি টাকার গ্রাচুইটি বাকি সহ পুজোর বোনাসও বাকি রয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন কর্মীরা। এদিন বিক্ষোভে অংশ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ পৌর কর্মচারী ফেডারেশন রায়গঞ্জ ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক শম্ভু বোস বলেন, পৌর প্রশাসক পুজোর বোনাস দুই ভাগে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। সেই অনুযায়ী অর্ধেক বোনাস দেওয়া হয়েছে। ছট পুজোর আগে বাকিটা মিটিয়ে দেওয়ার কথা ছিল, কিন্তু তা আজ পর্যন্ত পাওয়া যায় নি।

প্রতিবারই বেতন, পেনশন পাওয়ার জন্য আমাদের বারবার বিক্ষোভ করতে হচ্ছে। এর স্থায়ী সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আমরা লাগাতার কর্মসূচিতে অংশ নেবো। পরপর তিনদিন বিক্ষোভ ও গেটসভা চলার পর আগামী ৬ তারিখ এক ঘন্টার পেন ডাউন কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। তারপর ৭ তারিখ থেকে কর্মবিরতি ও অবস্থান বিক্ষোভ লাগাতার চলবে।

এই বিষয়ে রায়গঞ্জ পৌরসভার পৌর প্রশাসক সন্দীপ বিশ্বাস অবশ্য পৌর কর্মচারীদের আন্দোলনকে নৈতিক ভাবে সমর্থন জানিয়েই বলেন, আমি ওনাদেরকে পেন ডাউন কর্মসূচি গ্রহণ না করতে অনুরোধ করেছি। কারণ পৌর কর্মচারীরা কর্মবিরতি শুরু করলে জনসাধারণের পরিষেবা ব্যাহত হবে। ওনাদের বকেয়া টাকা মিটিয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা চলছে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, কিছু সমস্যার কারণে টাকা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। খুব শীঘ্রই এর সমাধান হবে। কোভিডের সময়েও রায়গঞ্জ পৌরসভা সকল কর্মীদের বেতন সুষ্ঠু ভাবে দিয়েছে, এবারেও তার অন্যথা হবে না।

News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Choose অবস্থা