বিজেপি নেতার গাড়ি থেকে ৯লক্ষ টাকা উদ্ধার, বাজেয়াপ্ত করলো পুলিশ 

#মালবাজার: শনিবার রাতে নাকা চেকিং এর সময় বিজেপির মাল বিধানসভার কনভেনর রাকেশ নন্দীর ডাব্লিউ বি ৭২ জে ২২৬৭ নম্বর গাড়ি থেকে নগদ ৭ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা এবং বিজেপির মহিলা মোর্চার জেলা সভানেত্রী দীপা বণিক এর কাছ থেকে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা উদ্ধার করল ক্রান্তি ফাঁড়ির পুলিশ। ওসি বুদ্ধদেব ঘোষ বলেন তাদের কাছ থেকে সবমিলিয়ে মোট ৯ লক্ষ ৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।
লোকসভা ভোটের মুখে বিজেপি নেতাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা উদ্ধারের ঘটনায় গোটা এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
পুলিশের জেরার মুখে পড়ে বিজেপির মাল বিধানসভার কনভেনর রাকেশ নন্দী বলেন রাজনৈতিক কাজের জন্য ওই টাকা তাকে দলের মহিলা মোর্চার জেলা সভানেত্রী দীপা বণিক তাকে দিয়েছিলেন । দীপা বনিককে ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি ।
এবিষয়ে জলপাইগুড়ির পুলিশ সুপার খান্ডেবহালে উমেশ গণপত জানিয়েছেন এম সি সি রুলস অনুযায়ী নির্বাচনের সময় কোনও ব্যক্তি যদি নগদ ৫০ হাজারের বেশি টাকা সঙ্গে বহন করেন তাহলে টাকার উৎস সম্পর্কে তাকে প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্র দেখাতে হয়। কিন্তু  ওইদিন রাতেই তারা কেউই সেরকম কিছু দেখাতে না পারায় সি আর পিসি ১০২ ধারা অনুসারে টাকাগুলি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।
এবিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভানেত্রী মহুয়া গোপ বলেন কেন্দ্রের বিজেপি সরকার বিভিন্ন প্রকল্পে বাংলার সাধারণ মানুষের ন্যায্য পাওনা টাকা দেয়না। সাধারণ মানুষের টাকা আটকে রাখাটাই বিজেপির কালচার। তিনি আরও বলেন ওদের কোনও জনসংযোগ নেই।ভোটের সময় টাকা দিয়ে ভোট কেনাটাই ওদের স্বভাব। জনসমক্ষে বহুদিন ধরে তারা এই কথা বলে আসছেন।
লোকসভা ভোটের মুখে বিজেপি নেতাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা উদ্ধারের ঘটনা তার জ্বলন্ত উদাহরণ। টাকা দিয়ে ভোট কেনার জন্যই বিজেপি নেতারা ওইদিন রাতের অন্ধকারে ওই বিপুল পরিমাণ টাকা নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে তার দাবি। এলাকার সাধারণ মানুষ সব কিছু দেখছেন। ভোটের বাক্সে মানুষ এর সমুচিত জবাব দেবেন বলে তার বিশ্বাস।
News Britant
Author: News Britant

Leave a Comment

Choose অবস্থা